1. admin@dainikprothomnews.com : admin :
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ সাতক্ষীরায় চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের হাত থেকে মৎস্যঘের রক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন সাতক্ষীরায় লাইসেন্সবিহীন ওষুধ রাখার দায়ে তিয়ানশি কোম্পানির অফিস সিলগালা সাতক্ষীরায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ১০৪তম জন্মবার্ষিকী পালিত সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের অভিযানে পুলিশে চাকরির প্রলোভনে শূন্য স্টাম্প ও চেকসহ প্রতারক আটক রোজাদারের মাঝে আসাদুজ্জামান বাবুর ইফতার সামগ্রী বিতরণ সাতক্ষীরায় মহেন্দ্রা ও ইঞ্জিনভ্যানের মুুখোমুখি সংঘর্ষে একজন নিহত সাতক্ষীরার ভোমরা ইমিগ্রেশন পুলিশ চেক পোস্টে পুলিশ সুপার কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশের অভিযানে ৫ কেজি গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক সাতক্ষীরায় শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় আন্তজার্তিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস পালিত

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে বারোমাসি তরমুজ চাষে ভাগ্য খুলেছে সিরাজুলের

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ১৪৪ জন দেখেছে

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে বারোমাসি তরমুজ চাষে ভাগ্য খুলেছে সিরাজুল ইসলাম ও সহিদুল ইসলামের।

বারোমাসি তরমুজ দেখতে আকর্ষণীয়, খেতে সুস্বাদু তরমুজের বাজারে ব্যাপক চাহিদা থাকায় চলতি মৌসুমে তার লাভ ছাড়িয়েছে লক্ষাধিক টাকা। সিরাজুলের সাফল্য সাড়া ফেলেছে এলাকার অন্য কৃষকদের মাঝে।

সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া গ্রামের কৃষক সিরাজুল প্রচলিত জাতের সবজি ও ফলের পাশাপাশি শখ ও কৌতূহলের বশে গত বছর পরীক্ষামূলক ভাবে শুরু করেন থাই জাতের তরমুজ চাষ। ফলন ভালো ও বাজারে দাম ভালো পাওয়ায় এ বছর পাঁচ বিঘা জমিতে চাষ করেন কানিয়া, মুনিয়া ও সুইটব্লাক নামের তিন প্রজাতির থাই তরমুজ।

বারোমাসি এই তরমুজ আবাদে সাফল্যের খবরে ফসলটির প্রতি আগ্রহ জেগেছে স্থানীয় কৃষকদের। প্রায় প্রতি দিনই আশপাশের গ্রাম থেকে কৃষকরা দেখতে আসছেন তরমুজ ক্ষেত।

সরেজমিনে তরমুজ ক্ষেত পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, জমিতে তরমুজের জন্য তৈরি করা হয়েছে ঘেরের ভেঁড়িতে সারি সারি মাচা। মাচা গুলোতে তিন ধরনের তরমুজ ঝুলছে। কানিয়া জাতের তরমুজ গুলো ডোরাকাটা সবুজ রঙের। তবে এর ভেতরের অংশ হলুদ রঙের। পাশের মাচায় ঝুলছে হলুদ রঙের বাঙ্গি সদৃশ তরমুজ। এর নাম মুনিয়া, ভেতরের অংশ লাল। কিছু মাচায় কালচে সবুজ রঙের সুইট ব্লাক তরমুজ, এরও ভেতরের অংশ লাল রঙের।

সফল চাষী সিরাজুল ইসলাম জানান, তিন ধরনের তরমুজ চাষ করলেও বাজারে কানিয়া তরমুজের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। এর পরই রয়েছে সুইট ব্লাক। গত বছর স্থানীয় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফারুক আহমেদের থেকে এসব তরমুজের বীজ সংগ্রহ করেন। গত মৌসুমে লাভবান হওয়ায় এ বছর চাষের পরিধি বৃদ্ধি করেছেন। তিনি আগামীতে আরও বড় পরি সরে বারোমাসি তরমুজ আবাদের পরিকল্পনা রয়েছে।

তিনি আরও জানান, তরমুজ আবাদের জন্য তৈরি করা মাচাতেই ফল সংগ্রহ শেষে শসা, করল্লা, শিম সহ বিভিন্ন সবজির আবাদ করা যায়। ফলে একই মাচা বারবার ব্যবহারে সাশ্রয় হয় কৃষকের।

তিনি বলেন, নিত্য নতুন ফসল আবাদে আমার আগ্রহ ছোটবেলা থেকেই। গত বছর পাঁচ কাঠা জমিতে তরমুজ পরীক্ষামূলক চাষ করি। বাজারে দেখলাম ভালো চাহিদা।

এ বছরে বারোমাসি তরমুজ রোপণ করে দারুণ ফলন পেয়েছি। বাজারেও ভালো চাহিদা আছে, প্রতি কেজি ৫৫ থেকে ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

স্বল্প সময়ে ভালো লাভ হওয়ায় তার দেখাদেখি বারোমাসি তরমুজ আবাদে আগ্রহী হয়েছেন এলাকার অন্য কৃষকরা। সাফল্যে খুশি জেলার কৃষি বিভাগ। নতুন ফসল উৎপাদনে উদ্যমী চাষিদের সহযোগিতার আশ্বাস দিলেন তারা।

ইউনিয়ন কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তা ফারুক আহমেদ বলেন, সিরাজুল ইসলাম বিভিন্ন সময় নতুন নতুন ফসল চাষে সফল হয়েছেন। এবার থাই তরমুজ চাষ করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। আমরা এ ধরনের প্রচেষ্টায় সর্বাত্মক সহযোগিতা দিচ্ছি। আশা করছি, আগামীতে বারোমাসি তরমুজ উৎপাদন অনেক বাড়বে।

ইউপি চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভীন বলেন, কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের বানিয়াপাড়া, বেনাদোনা, সোতা, রঘুনাথপুর, কালিকাপুরসহ বিভিন্ন গ্রামে ব্যাপক ফসলের চাষ হযে থাকে। প্রতিদিন নিজেদের পরিবারের চাহিদা মিটিয়ে কয়েক ট্রাক সবজি, তরমুজ, খিরাই, শষা ও তরিতরকারী রপ্তানি করা হয়। আমি চেষ্টা করি কৃষকরা যেনো নির্বিঘ্নে তারা চাষাবাদ করতে পারেন।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021-2024 দৈনিক প্রথম নিউজ
প্রযুক্তি সহায়তায় রি হোস্ট বিডি