1. admin@dainikprothomnews.com : admin :
বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
সাতক্ষীরায় শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় আন্তজার্তিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস পালিত সাতক্ষীরা জোন ট্যুরিস্ট পুলিশের আয়োজনে সুন্দরবন দিবস পালন সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ৫১৫ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক ১ সাতক্ষীরায় বিশ্ব ক্যান্সার দিবস ২০২৪ শীর্ষক র‌্যালি ও আলোচনা সভা সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৪০ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক ১ বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসক-নার্স নেওয়ার ঘোষণা সৌদির শীতের রাতে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় হঠাৎ বন্যা! মূল্যবৃদ্ধি ও কালো টাকার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে সিভিল ডিফেন্স ও ভলান্টিয়ার বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উপকারী শাক ৩টি সম্পর্কে জেনে নিন

জামায়াত ছাড়াই শক্তির মহড়া দিতে প্রস্তুতি বিএনপি

প্রথম নিউজ ডেস্ক
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২২
  • ১২৭ জন দেখেছে
ছবি সংগ্রহীত

নিজেদের সমর্থন এই এলাকায় বেশি- এমন বিবেচনা করেই ঢাকার মহাসমাবেশের আগের শেষ মহাসমাবেশটি রাজশাহীতে করার কৌশল নিয়েছে বিএনপি। এ অঞ্চলে রাজনীতির মাঠে বিএনপি নিজেদের একক শক্তির জানান দিতে চায়। সে কারণে এই বিভাগীয় মহাসমাবেশে জামায়াতের কোনো সহযোগিতাও নেবে না দলটি। যদিও তাদের এই কৌশল খুব একটা কাজে লাগবে না বলে মনে করে আওয়ামী লীগ।

আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ। প্রতিদিনই থাকছে ছোট-বড় নানা কর্মসূচি। কিছুদিন পরপরই কেন্দ্রীয় নেতারা আসছেন রাজশাহীতে। লক্ষ্য বিভাগীয় মহাসমাবেশে জনসমাগম।

বিএনপি নেতাদের আশঙ্কা, মহাসমাবেশের শেষ দিকে এসে প্রতিবন্ধকতা বাড়তে পারে। তাই আঞ্চলিকভাবে শক্তি ও সামর্থ্য বেশি- এমন বিবেচনায় ঢাকার ঠিক আগের মহাসমাবেশটিই রাজশাহীতে করার কৌশল নিয়েছেন তারা। বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সমাবেশের প্রধান সমন্বয়কারী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, ঢাকার সমাবেশের আগে সরকার কঠোর অবস্থানে যেতে পারে। আরও কঠোর হয়ে নেতা-কর্মীদের হয়রানি ও নির্যাতনের কৌশল নিতে পারে। এ কারণেই শক্তি-সামর্থ্যরে বিচারে রাজশাহীতে তারা অনেক বেশি শক্তিশালী।

এ কারণে ঢাকার আগের সমাবেশটি তারা এখানে করছেন। তবে দীর্ঘদিনের জোটসঙ্গী হলেও এই মহাসমাবেশে জামায়াতের কোনো সহযোগিতাও না নেওয়ার কথা জানান বিএনপি নেতারা। বিভাগীয় সমাবেশের সমন্বয়কারী শাহীন শওকত বলেন, এটি বিএনপির সমাবেশ। এ অঞ্চলে বিএনপি অনেক বেশি শক্তিশালী। জনসমর্থন, কর্মী-সব কিছু মিলে বিএনপির অন্য কোনো দলের প্রয়োজন নেই। তারা এই সমাবেশে জামায়াতের কোনো সহযোগিতা নিচ্ছে না।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির সমাবেশ। এখানে জামায়াতকে দাওয়াত দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।’ বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু বলেন, তারা জামায়াতের কোনো সহযোগিতা নিচ্ছেন না। জামায়াতকে দাওয়াতও দিচ্ছেন না। তবে উন্মুক্ত সমাবেশ। এখানে যে কেউ আসতে পারেন।

দলটির প্রত্যাশা, আগের সব ছাড়িয়ে বৃহৎ মহাসমাবেশ হবে রাজশাহীতে। বিভাগীয় সমাবেশের সমন্বয়কারী শাহীন শওকত বলেন, এ অঞ্চল ঐতিহাসিকভাবেই বিএনপির পক্ষে। সরকারের বর্তমান কর্মকাণ্ডে সাধারণ মানুষ ক্ষুব্ধ। এ কারণে মানুষ এই সমাবেশে উপচে পড়বে। মিজানুর রহমান মিনু বলেন, অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এই সমাবেশে জনসমাগম বেশি হবে। সরকার চাইলেও আটকে রাখতে পারবে না।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021-2024 দৈনিক প্রথম নিউজ
প্রযুক্তি সহায়তায় রি হোস্ট বিডি