1. admin@dainikprothomnews.com : admin :
বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৪৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
সাতক্ষীরায় শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় আন্তজার্তিক মাতৃভাষা ও জাতীয় শহীদ দিবস পালিত সাতক্ষীরা জোন ট্যুরিস্ট পুলিশের আয়োজনে সুন্দরবন দিবস পালন সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ৫১৫ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক ১ সাতক্ষীরায় বিশ্ব ক্যান্সার দিবস ২০২৪ শীর্ষক র‌্যালি ও আলোচনা সভা সাতক্ষীরায় ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৪০ বোতল ফেন্সিডিলসহ আটক ১ বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসক-নার্স নেওয়ার ঘোষণা সৌদির শীতের রাতে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় হঠাৎ বন্যা! মূল্যবৃদ্ধি ও কালো টাকার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে সিভিল ডিফেন্স ও ভলান্টিয়ার বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উপকারী শাক ৩টি সম্পর্কে জেনে নিন

দূর্যোগ মোকাবিলা করে দাকোপের কৃষকরা চাষাবাদ করছেন

কৃষি ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৮৯ জন দেখেছে

সুন্দরবন সংলগ্ন দাকোপ উপজেলার কৃষকরা নদীভাঙন ও লবণাক্ততার আগ্রাসন পেছনে ফেলে সিডর, আইলা ও বুলবুলের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ কাটিয়ে চাষাবাদ করছেন। তারা বিভিন্ন ফসলের সঙ্গে ধানও আবাদ করছেন।

তারা এখন মৌসুম ছাড়াই শিম, টমেটো, শসা, পেঁপে, মিষ্টি আলু, তরমুজ চাষ করছেন। কৃষি বিভাগের নিবিড় তত্ত্বাবধানে কৃষকরা এখন প্রাকৃতিক দুর্যোগকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে লবণাক্ত জমিতে ফসল ফলাতে পারছেন। যদিও খুলনার দাকোপ উপজেলা তরমুজের জন্য সারাদেশে বিখ্যাত।

দাকোপের মাঠে সবুজ ধানের শীষ বেরোতে শুরু করেছে। শেফ প্রতিদিন ধীরে ধীরে বাড়ছে এবং কৃষকের স্বপ্ন আরও বড় হচ্ছে। কয়েকদিন আগে বৃষ্টির কারণে স্বপ্নের অবসান ঘটে। তবে সব শীতের সবজিই কৃষকের স্বপ্নকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। ধানের পাশাপাশি তারা বিভিন্ন সবজি উৎপাদন করছে। একটা সময় যা ছিল শুধুই স্বপ্ন। এখন এটা সব বাস্তব।

কৃষকরা জানান, এ বছর ধান ভালো হয়েছে। গত বছর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি করেছিল। আবহাওয়া ভালো থাকায় এবার আমন ফলন সবচেয়ে ভালো হয়েছে। তাই কৃষকের চোখে সোনালি ধানের সোনালি স্বপ্ন। শুধু ধান নয়, সবুজে ছেয়ে গেছে দাকোপের প্রত্যন্ত এলাকা।

দাকোপার সুতারখালী গ্রামের কৃষক মো. ইয়াসিন মোল্যা, আজিজুল মোল্লা, সাব্বির আহমেদ সানা, নবিবুল্লাহ সানারা জানান, এক সময় যতদূর চোখ দেখা যেত পানি। লোনা পানিতে ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়ে দিয়েছে কিছু প্রভাবশালী চিংড়ি। কিন্তু সেই দাকোপে এখন কোনো বেড়া নেই। এখন শুধু ফসল তোলা আর ফসল কাটা দেখা যায়। প্রথমে লবণাক্ততার কারণে কিছুটা সমস্যা হলেও এখন প্রায় চলে গেছে।

এসব কৃষকের মতে, মাঠ ধানে ভরা। ধান ক্ষেতে ভরা সোনালী মাঠ দেখলে মন ভরে যায়। তিনি জানান, ধানের পাশাপাশি সবজি চাষ করেছেন। শীতের এই সময়ে পার্শ্ববর্তী উপজেলা ডুমুরিয়ায় শুধু শীতকালীন সবজির চাষ হয়। কিন্তু আমরা লবণ-সহিষ্ণু সব ফসল উৎপাদনে নেমে এসেছি। আমরা কৃষি বিভাগ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা পাচ্ছি। কৃষি কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক তদন্ত চালাচ্ছেন। ধানের পাশাপাশি তারা বিভিন্ন সবজিও উৎপাদন করছে।

দাকোপের নলিয়ান ও কালাবগি এলাকার বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে দেখা গেলেও এখন সব বেড়াই বড় হওয়ার পরিবর্তে ছোট হয়ে গেছে। ঘের চারপাশে সঙ্গে জাল স্তব্ধ। বাগানের ওপরে ও চারপাশে বেড়ার ওপর নানা ধরনের সবজি গাছ বেড়ে উঠেছে। সেখানে বেগুন, করলা, বরবটি, টমেটো বাড়ছে। অন্যদিকে বাগদা চিংড়িসহ সাদা মাছের আশপাশে বাড়ছে।

নলিয়ানের বাসিন্দা আব্দুল লতিফ মোড়ল জানান, তিনি এবার প্রায় ৭০ বিঘা জমিতে ধান চাষ করেছেন। একই সঙ্গে জমির আইলে চাষ করেছেন বিভিন্ন জাতের সবজি। যা তিনি এখন বিক্রি করছেন। তিনি জানান, গত ৩ থেকে ৪ বছর ধরে তিনি সবজির পাশাপাশি ধান চাষ করছেন। লবণাক্ততার কারণে প্রথমে সবজি ভালো না হলেও এখন তিনি খুব ভালো সবজি উৎপাদন করছেন।

দাকোপ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান খান জানান, জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি দাকোপে ১৮ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদ হয়েছে। দাকোপে চলতি আমন মৌসুমে গতবারের চেয়ে ফলন ভালো হয়েছে। তিনি বলেন, কৃষকরা ইতিমধ্যে তাদের জমির ৫ শতাংশ ফসল কেটে ফেলেছেন। তিনি মনে করেন, আগামী ২০ দিনের মধ্যে কৃষকরা সব মাঠ থেকে ধান তুলতে পারবেন।

কৃষি কর্মকর্তা আরও জানান, আমন ধান রোপনের সময় কৃষকরা তাদের জমির আইলে বিভিন্ন সবজি চাষ করেছেন। তবুও তা চলতে থাকে। দাকোপের চাষিরাও তরমুজ চাষের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, এখানকার তরমুজের দেশ বিখ্যাত। তাই মৌসুমের পাশাপাশি এখানকার কৃষকরা তরমুজ চাষ করছেন।

উপকূলীয় মানুষ এবং পরিবেশের উপর লবণাক্ততার নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলায় খুব কম সমন্বিত প্রচেষ্টা রয়েছে। তাদের সঙ্গে সরকারি সংস্থা কাজ করছে। এর মধ্যে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সফলভাবে লবণ সহনশীল জাত উৎপাদন করছে। নদীর লোনা পানি যাতে লোকালয়ে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধ নির্মাণ ও মেরামত করছে।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021-2024 দৈনিক প্রথম নিউজ
প্রযুক্তি সহায়তায় রি হোস্ট বিডি