1. admin@dainikprothomnews.com : admin :
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:১৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
সাতক্ষীরার তালায় ধানবোঝাই ট্রাক উল্টে দুইজন নিহত সাতক্ষীরায় মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী, দুর্নীতিগস্থ ও সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টিকারীদের প্রশ্রয় দেওয়া হবে না সাতক্ষীরায় চারটি অস্ত্র, ২৯ রাউন্ড গুলি ও তিনটি ম্যাগাজিন জব্দ করেছে র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরায় তেলজাতীয় ফসল উৎপাদনে ৫ কৃষক পুরস্কৃত সাতক্ষীরায় কোন আম কবে পাড়া যাবে, জানালো জেলা প্রশাসন সাতক্ষীরার কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে স্ত্রীর আত্মহত্যা! বাঁশেরবাদা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন সাতক্ষীরার আশাশুনিতে এসএসসি ২০০৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত আজ থেকে ব্যাংক-বীমা-অফিস-আদালত খুলছে ইরানের দাবি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ক্ষেপণাস্ত্র, লুকাতে চাচ্ছে ইসরায়েল

রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় কাঁপল ইউক্রেন ৪০ সেনাসহ নিহত অর্ধশত, আহত শতাধিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৮৮ জন দেখেছে

ইউরোপ-আমেরিকার কড়া হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে ইউক্রেনে দফায় দফায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাল রাশিয়া। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন মস্কো সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা ৫৫ মিনিটে ইউক্রেনে অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন। এর কয়েক মিনিট পরেই গোলাবর্ষণ ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু হয়।

তিন দিক দিয়ে ইউক্রেনে ঢুকে পড়ে রাশিয়ার পদাতিক বাহিনীও। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে পাঁচ থেকে ছয়টি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এরপর আশপাশের বিভিন্ন শহর থেকেও বিমান হামলার খবর আসে। হামলা হয়েছে পোডিলস্ক শহরের সেনা ঘাঁটিতেও।

এসব হামলায় ৪০ সেনা ও ১০ জন বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। এছাড়া অর্ধশত লোক নিখোঁজ রয়েছেন। হামলার আগেই রাতে এক ভিডিও বার্তায় ইউক্রেনে এক মাসের জরুরি অবস্থা জারি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কি। দেশবাসীর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আতঙ্কের কিছু নেই। আমরা শক্ত অবস্থানে আছি। যে কোনো কিছুর জন্য আমরা প্রস্তুত। আমরা ওদের প্রতিহত করব।’

ইউক্রেনে হামলা শুরুর পরপরই কিয়েভে সতর্ক ঘণ্টা বাজতে শুরু করে, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন ছবি ও ভিডিওতে দেখা যায়, কিয়েভ শহর ছাড়ছেন মানুষ। মহাসড়কগুলোতে যানবাহনের সারি।

তবে জনশূন্য শহরের কেন্দ্রস্থল। বাস, ট্রেন ও বিমানবন্দরে ভিড় করছেন আতঙ্কিত বাসিন্দারা। অনেকে বোমার হাত থেকে বাঁচতে বেজমেন্ট ও আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে ছুটছেন। রাস্তায় দলবেঁধে লোকজনকে প্রার্থনা ও কান্নাকাটি করতে দেখা গেছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, এ হামলার ফলে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপে বড় ধরনের দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধ শুরু হতে পারে। হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র এবং তার মিত্ররা। রাশিয়ার ওপর সর্বাত্মক নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে তারা।

তবে পুতিন বলছেন, আত্মরক্ষার অংশ হিসাবেই এই সামরিক অভিযান। এতে কেউ নাক গলালে তাৎক্ষণিক জবাব দেওয়া হবে। পুরো ইউক্রেন দখলের কোনো ইচ্ছা নেই বলেও জানান পুতিন।

খবর এএফপি, বিবিসি, রয়টার্স, সিএনএনসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের। হামলার আগে রাশিয়ার জাতীয় টেলিভিশনে পুতিনের ভাষণ সম্প্রচার করা হয়। ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের ঘোষণায় পুতিন বলেন, পরিস্থিতি বিবেচনায় অবিলম্বে আমাদের এমন পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজন পড়েছে।

পূর্ব ইউক্রেনের দনবাসের স্বাধীন দুটি প্রজাতন্ত্র আমাদের কাছে সাহায্য চেয়ে অনুরোধ করেছে। জাতিসংঘ সনদের সপ্তম অধ্যায়ের ৫১ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, আমি সেখানে একটি বিশেষ সামরিক অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

পুতিন ভাষণে ইউক্রেন সেনাদের অস্ত্র ত্যাগের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সম্ভাব্য রক্তপাতের সব দায় ইউক্রেন সরকারকে নিতে হবে। ইউক্রেন দখলের কোনো পরিকল্পনা আমাদের নেই। কারও ওপর কোনো কিছু চাপিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনাও নেই আমাদের।

ইউক্রেন জানায়, তিন দিকের সীমান্ত দিয়ে তাদের দেশে হামলা চালানো হয়েছে। রাশিয়া, বেলারুশ এবং ক্রিমিয়া সীমান্ত দিয়ে ইউক্রেনে ঢুকে পড়ে রুশ পদাতিক বাহিনী। স্থানীয় সময় সকাল ৬টার দিকে ইউক্রেনের উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্ব সীমান্তে একযোগে প্রবেশ করে রাশিয়ান ফেডারেশন এবং বেলারুশপন্থি রুশ সেনারা।

একই সময় রাজধানী কিয়েভ, পোডিলস্ক, লুহানস্ক, সামি, খারকিভ, ছেরনিহিভ ও ঝিতোমির অঞ্চলে বিমান থেকে বোমা হামলা হয়েছে। রাশিয়ান সেনারা কামান, ভারী সরঞ্জাম এবং ছোট অস্ত্র ব্যবহার করে সীমান্ত ইউনিট, সীমান্ত টহল এবং চেকপয়েন্টগুলোতে আক্রমণ করছে।

এমআই-৮ অ্যাসল্ট হেলিকপ্টার দিয়ে রুশ বাহিনী হোস্টমেলের আন্তোনোভ শহরের একটি বিমানবন্দরে বড় ধরনের হামলা চালিয়েছে। ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাশিয়া বিমানবন্দরটি দখল করে নিয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কির প্রশাসনিক সহকারী ওলেকসি আরেস্টোভিচ বলেছেন, আমি জানতে পেরেছি ৪০ জনের বেশি সেনা নিহত ও শতাধিক আহত হয়েছেন। এছাড়া প্রায় ১০ জন বেসামরিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, স্বায়ত্তশাসিত ক্রিমিয়া প্রজাতন্ত্র থেকেও হামলা চালানো হয়েছে। ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনী এবং ন্যাশনাল গার্ডসহ সীমান্ত রক্ষীরা শত্রুদের জবাব দিচ্ছে।

এর আগে ইউক্রেনে সামরিক শাসন জারির আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কি। বুধবার মধ্যরাতে দেওয়া ভাষণে ইউরোপে যে কোনো দিন রাশিয়া বড় ধরনের একটি যুদ্ধ শুরু করতে পারে বলে সতর্ক করেন তিনি।

জেলেনস্কি রাশিয়ার নাগরিকদের এ যুদ্ধের বিরোধিতা করার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, রাশিয়া হামলা করলে তা প্রতিহত করতে প্রস্তুত রয়েছে ইউক্রেন। জেলেনস্কি বলেন, ইউক্রেনের সীমান্তে রাশিয়া প্রায় দুই লাখ সেনা ও হাজার হাজার সামরিক যানবাহন মোতায়েন করেছে।

ভাষণে তিনি জানান, তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে আলোচনার চেষ্টা করেছেন। জেলেনস্কি বলেন, আমি রাশিয়ান ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একটি টেলিফোন কথোপকথন শুরু করেছিলাম। কিন্তু অপরদিকের ফলাফল ছিল নীরবতা। ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় যেসব নাগরিক যুক্ত হতে চান তাদের অস্ত্র সরবরাহেরও ঘোষণা দেন তিনি।

ইউক্রেনের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের দাবি : ইউক্রেনের সামরিক বিমান ও আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের দাবি করেছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে এ মন্ত্রণালয় জানায়, ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর বেশকিছু বিমানঘাঁটির সামরিক অবকাঠামো অচল করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া কিয়েভের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাও ধ্বংস করে দিয়েছে রুশ সামরিক বাহিনী।

৫০ রাশিয়ানকে হত্যার দাবি ইউক্রেনের : ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী দাবি করেছে, রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা একটি শহরে হামলা করার পর তা প্রতিহত করার সময় প্রায় ৫০ জন ‘দখলদার রাশিয়ান’ নিহত হয়েছেন।

এছাড়া ইউক্রেনের শাচিসতিয়া শহর ও পূর্বাঞ্চলে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় রাশিয়ার পাঁচটি বিমান ও একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত করার দাবি করে ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনী। ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান জেনারেল সেরহিই শাপটাললা টুইটারে বলেছেন, ‘রাশিয়ার সেনারা শাচিসতিয়া শহরে হামলা করেছিল। শাচিসতিয়া নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

দখলদার ৫০ রাশিয়ান নিহত হয়েছেন। ক্রামাটোরস্ক জেলায় রাশিয়ার আরও একটি বিমান ভূপাতিত করা হয়েছে। এ নিয়ে ছয়টি বিমান ভূপাতিত হলো।’ তবে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, ইউক্রেনের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর পক্ষ থেকে কোনো বাধা বা প্রতিরোধের সম্মুখীন হয়নি তারা।

সাইবার হামলারও শিকার ইউক্রেন : ইউক্রেনে বিমান হামলার পাশাপাশি দেশটির সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইটগুলোতে সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। ফলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ওয়েবসাইটগুলো ‘ডাউন’ হয়ে যেতে দেখা যায়।

সাইবার নিরাপত্তা গবেষকদের ভাষ্য, ইউক্রেনের শত শত কম্পিউটারে তথ্য মুছে দেওয়ার টুল (ডেটা-ওয়াইপিং টুল) পাওয়া গেছে।

মার্কিন সাইবার সিকিউরিটি ফার্ম ম্যান্ডিয়েন্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা চার্লস কারমাকাল বলেন, ‘আমরা ইউক্রেনের একাধিক বাণিজ্যিক ও সরকারি সংস্থার ওয়েবসাইট মারাত্মক ম্যালওয়্যার দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঘটনা সম্পর্কে অবগত আছি।’

মার্কিন কর্মকর্তারা আগেই সতর্ক করে বলেছিলেন যে রাশিয়া সম্ভবত ইউক্রেনে সামরিক পদক্ষেপের পাশাপাশি সাইবার হামলা চালাতে পারে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত মাসে বলেছিলেন, রাশিয়া যদি ইউক্রেনে সাইবার হামলা চালায়, তাহলে যুক্তরাষ্ট্র তাদের নিজস্ব সাইবার অপারেশনের মাধ্যমে পালটা জবাব দেবে।

ব্রিটেনের নিষেধাজ্ঞা : ইউক্রেনে হামালার পালটা ব্যবস্থা হিসাবে ব্রিটেন রাশিয়ার ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, এই নিষেধাজ্ঞার ফলে আগামী বছরের মধ্যে রাশিয়ার অর্থনীতির অবনতি হবে।

এদিকে ইউক্রেনের হামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার ডাউনিং স্ট্রিটের বাইরে বিক্ষোভ হয়েছে। প্রতিবাদকারীরা ইউক্রেনের পতাকা ও বিভিন্ন স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে ডাউনিং স্ট্রিটের বাইরে জড়ো হয়েছিলেন।

এছাড়া কাউন্সিল অব ইউরোপ রাশিয়ার বিরুদ্ধে অবরোধের কথা ভাবছে।

নিষেধাজ্ঞা দেবে জি-৭: রাশিয়ার বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা দিতে সম্মত হয়েছে গ্রুপ-৭ ভুক্ত দেশগুলো। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ইউক্রেনের ওপর প্রেসিডেন্ট পুতিনের অযৌক্তিক আক্রমণ নিয়ে আলোচনা করার জি-৭ দেশগুলোর নেতাদের সঙ্গে দেখা করেছি এবং আমরা রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে সম্মত হয়েছি।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021-2024 দৈনিক প্রথম নিউজ
প্রযুক্তি সহায়তায় রি হোস্ট বিডি