1. admin@dainikprothomnews.com : admin :
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০২:৪২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
সাতক্ষীরার তালায় ধানবোঝাই ট্রাক উল্টে দুইজন নিহত সাতক্ষীরায় মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী, দুর্নীতিগস্থ ও সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টিকারীদের প্রশ্রয় দেওয়া হবে না সাতক্ষীরায় চারটি অস্ত্র, ২৯ রাউন্ড গুলি ও তিনটি ম্যাগাজিন জব্দ করেছে র‌্যাব-৬ সাতক্ষীরায় তেলজাতীয় ফসল উৎপাদনে ৫ কৃষক পুরস্কৃত সাতক্ষীরায় কোন আম কবে পাড়া যাবে, জানালো জেলা প্রশাসন সাতক্ষীরার কলারোয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে স্ত্রীর আত্মহত্যা! বাঁশেরবাদা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন সাতক্ষীরার আশাশুনিতে এসএসসি ২০০৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত আজ থেকে ব্যাংক-বীমা-অফিস-আদালত খুলছে ইরানের দাবি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে ক্ষেপণাস্ত্র, লুকাতে চাচ্ছে ইসরায়েল

সাতক্ষীরায় অগ্রিম জাতের টক-মিষ্টি কুল চাষে লাভের আশায় চাষীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২০৯ জন দেখেছে

সাতক্ষীরায় জমির আইল ও মাছের ঘেরের বেড়িবাধে সারি সারি কুলগাছ। আকারে গাছ গুলো ছোট। বড়জোর চার থেকে পাঁচ ফুট। কুলের ভারে মাটিতে নুয়ে পড়েছে গাছগুলো। বাগান প্রতিনিয়ত কুল তুলছেন চাষীরা।

অনেকেই কুল চাষ করে ঘুচিয়েছেন বেকারত্ব। এবছর নগরঘাটা ইউনিয়নের প্রায় ১৫০জন কৃষক কুল চাষ করেছেন।

সাতক্ষীরার নগরঘাটা গ্রামের কয়েকজন চাষীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, চলতি মৌসুমে যার যার নিজের জমি ও লিজ নেওয়া জমিতে উন্নতজাতের আপেল কুল, বাউকুল, নারকেল ও থাইকুলের চাষ করেছেন।

সব কুলে তিনি বিঘাপ্রতি ১০০ থেকে ১২০ মণ হারে ফলন পাবেন বলে আশা করছেন। এ কুল বাগান রোপণ ও পরিচর্যায় প্রতি বিঘায় খরচ হয় ৩৫ থেকে ৫০ হাজার টাকার মতো। ফলন ভালো হলে ও বাজার মূল্য ভাল পাওয়া গেলে খরচের অর্ধেক লাভ পাওয়া যায়।

উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে চলতি মৌসুমে সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় এ বছর ১৩০ হেক্টর জমিতে কুল চাষ করেছেন কৃষকরা। পরিবহন সেক্টরে কাচামাল (তরি-তরকারি) বহনে কোন বিধি নিষেধ না থাকায় করোনার নতুন ধরণ ওমিক্রণ কোন প্রভাব পড়বে না বলে মনে করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাজিরা খাতুন।

উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষিবিদ নয়ন হোসেন জানান, তালা উপজেলায় অন্যান্য কুলের পাশাপাশি এবার সাড়ে ৯ বিঘা জমিতে অগ্রিম জাতের টক-মিষ্টি কুলের চাষ করা হয়েছে। ফলনও মোটামুটি ভাল হয়েছে। আগাম ফলন হওয়ায় ৯০ থেকে ১৩০ টাকা বাজার দরে বিক্রয় করেছেন চাষীরা। আগামী বছর এই কুলের চাষ আরো বাড়বে বলে তিনি আশাবাদি।

নগরঘাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান লিপু বলেন, কৃষক ধান আবাদ করে অনেক সময় লোকসানের শিকার হন। তার পরিবর্তে কম খরচে ফসলি জমি ও মাছের ঘেরের বেড়িবাধে দীর্ঘমেয়াদি কুল চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। এ জন্য কৃষকেরা বাণিজ্যিকভাবে কুল চাষে ঝুঁকছেন।

তিনি আরও বলেন, গ্রীস্মকালীন টমেটা চাষ পরিদর্শনে এসে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক নগরঘাটা গ্রামকে ‘টমেটা গ্রাম’ নামে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। উৎপাদন এবং রপ্তানী বৃদ্ধি ও বহুমুখীকরণে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে নগরঘাটা ইউনিয়নে একটি অর্থনৈতিক জোন হলে এই এলাকার কৃষকরা উপকৃত হবে।

সংবাদ টি শেয়ার করে সহযোগীতা করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2021-2024 দৈনিক প্রথম নিউজ
প্রযুক্তি সহায়তায় রি হোস্ট বিডি